রাজপথে ফুল ছিটানোর কথা থাকলেও রক্ত ঝরানো হলো: মির্জা ফখরুল

সিলেটের আলোসিলেটের আলো
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  March 27, 2021

স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে দেশজুড়ে উৎসব, আনন্দ ও রাজপথে ফুল ছিটানোর কথা থাকলেও রক্ত ঝরানো হলো। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরকে কেন্দ্র করে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম ও চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে মাদরাসার ছাত্রদের মৃত্যুর ঘটনা নির্মম, ন্যক্কারজনক ও অমানবিক উল্লেখ করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (২৬ মার্চ) রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ নিন্দা জানান তিনি।

হামলায় গুলিতে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা ও আহতদের আশু সুস্থতা কামনা করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আজ শুক্রবার (২৬ মার্চ) ঢাকায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সাধারণ মুসুল্লিদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির ওপর পুলিশের গুলিবর্ষণ ও বেধড়ক লাঠিচার্জের প্রতিবাদে চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসার সাধারণ ছাত্ররা তাৎক্ষণিকভাবে মিছিল বের করলে পুলিশ শান্তিপূর্ণ মিছিলের ওপর বেপরোয়া গুলি চালিয়ে এ পর্যন্ত চার জনকে হত্যা ও অসংখ্য ছাত্রকে গুরুতর আহত করে। এর প্রতিবাদে সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিবাদরত মানুষদের ওপর নির্বিচারে গুলি চালিয়ে এক জনকে হত্যা ও অসংখ্য মানুষকে আহত করা হয়। এ ধরনের নির্মম, ন্যক্কারজনক ও অমানবিক ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, মহান স্বাধীনতা দিবসের মতো জাতীয় উৎসবের দিনে বায়তুল মোকাররম, চট্টগ্রামের হাটহাজারী এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ ও ছাত্রলীগ-যুবলীগের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের যৌথ হামলা এবং হত্যার ঘটনা বর্তমান সরকারের ফ্যাসিবাদী আচরণের আরও একটি জঘন্য দৃষ্টান্ত। হাটহাজারী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সরকারের সন্ত্রাসী বাহিনীর নির্মম হামলায় এ পর্যন্ত পাঁচ জনের প্রাণ গেছে, অসংখ্য গুরুতর আহত হয়েছে। এই নির্মম ঘটনার নিন্দা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই।

তিনি বলেন, এসব অপকর্মের জবাব দেওয়ার জন্য আওয়ামী ভোটারবিহীন সরকারকে অবশ্যই এক দিন জনগণের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে। জনগণ এই বর্বর আচরণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে।

আপনার মতামত লিখুন :